Homepage 51th Issue Content Editorial Cover Art by Debarshi Sarkar পরিবিষয়ী কবিতা Your Comments Contact Us Books From Kaurab

এই সময়ে কবিতা কী আরেকটু সাহসী হয়ে উঠবে? সেটাই হয়ত স্বাভাবিক। যখন কবিতা শুধু অনুভূতি প্রকাশের মাধ্যম হিসেবে এখনও বাঙালি জাতির প্রাণে, তখন কিছু তরুণ নেমে পড়ছেন অন্যান্য মাধ্যমের সঙ্গে কথা বলতে। আমার মনে পড়ছে এস্পানিয়ার কবি আন্তোনিও কোলিনাসের কথা (Antonio Colinas)। এসেছেন দিল্লিতে কবিতা পড়তে, আমার সঙ্গে ২০০৭ থেকেই অসমবয়সী বন্ধুত্ব। চলে গেছি লোদি-বাগানে। মার্চ এর শেষ, গরম আসেনি। অমলতাস ও কাঠবিড়ালির খেলা পেরিয়ে আমরা প্রথমে দাঁড়িয়েছি ওক্তাবিও পাস এর কবিতার পাখি উগরে দেওয়া গম্বুজের সামনে। নীরব আন্তোনিও। কবিতাটা পড়া হল। তারপর এক আর নির্জন এলাকায়। আন্তোনিওকে বললাম ওঁর তাও মনাস্ট্রিকে লেখা কবিতাটা পড়ার জন্য। উনি পড়লেন। শুরু হল স্থাপত্যের সঙ্গে কথা। তারপর এসে গেল ভাষা-স্থাপত্য। সহজাত ভাষা থেকে বেরিয়ে নির্মাণের দিকে যাওয়া। আমি মনে করালাম একাদশ শতকের পারস্য থেকে আসা গজলের কথা। যে কবিতা একটা দ্বিপদীও হতে পারে (নজম) আবার এক অশেষ কবিতাতেও পরিণত হতে পারে। যার গমন সর্পিলাকার। প্রস্থানভূমি অসীম।

আমাদের সময়ে এসে কবিতা হয়ত সেই অসীমের দিকেই যেতে চাইছে নির্মাণে, প্রস্থানে। কথা বলতে চাইছে অন্যান্য মাধ্যমের সঙ্গে। যখন আর রাজনীতির চিৎকার নেই বা আলাদা করে গান নেই, সেখানেই সব মিলে এক দ্বিরালাপ। এক বহুস্বরী নিঃশ্বাস।

শুভ্র
দিল্লি
গ্রীষ্ম ২০১৭